একজন মানবিক সাকিব আল হাসানের গল্প
একজন মানবিক সাকিব আল হাসানের গল্প

একজন মানবিক সাকিব আল হাসানের গল্প

সাকিব আল হাসানের মানবিকতার গল্প

আমি সাকিবের খুব একটা ভক্ত না। তবুও আজকে কিছু বিষয় নিয়ে আমার লিখতে ইচ্ছে হলো। একজন মানবিক সাকিবের জন্য। একটা নক্ষত্রের জন্য। 💙 অ্যাজ অ্যা ক্রিকেট অ্যাডহিয়ারেন্ট। 💙 

গত ২২ শে এপ্রিলের পুরো বিডিং সেশনটা আমি দেখেছি। সেখানে সাকিবের কিছু কথা খুবই ভালো লেগেছে।

সাকিব বলেছিলেন বাংলাদেশের মানুষের হাসি দেখতে পেলে খুশি হবো তবে সে হাসির কাছে আমার এই প্রিয় ব্যাটটি খুবই নগন্য। পারলে এরচেয়ে আরো বেশি কিছু দিতাম। সাকিব আল হাসান ফাউন্ডেশনের লক্ষ্য ছিলো মূলত স্পোর্টস নিয়ে কাজ করার, দক্ষিণ এশিয়ার সবচেয়ে বড় ক্রিকেট অ্যাকাডেমি করা প্লাস ইয়্যুনিভার্সিটি, হাসপাতাল এরকম কিছু উদ্দ্যেশ্য নিয়ে কাজ করার। সেখানে তিনি ক্রাইসিস মোমেন্ট দেখে তৎক্ষনাৎ সিদ্ধান্ত নিলেন এখনই এটা করে ফেলবেন এবং বাংলাদেশের মানুষের হাসির জন্য লড়াই করবে তার ফাউন্ডেশন। 💙

অ্যা ভেরি বিগ অ্যাপালাউস ফর টেইকিং দিস স্টেপ ভেরি কুইকলি ফ্রম মাই সাইড টু সাকিব আল হাসান।

এক নজরে দেখে নিতে পারেন ব্যাট নিলামে বিক্রি করার শেষাংশ টুকুঃ

ব্যাটটি যদি নিলামে কেউ না কিনতো তাহলে সাকিব নিজেই নিজের প্রিয় ব্যাটটি কিনে রেখে দিতেন। কারণ ঐ ব্যাটে তার অনেক স্মৃতি নিজের সেরা বিশ্বকাপটাই যে ঐ ব্যাটে খেলেছেন। নিজের অর্জনের সবচে বড় অংশটাই জড়িত ছিলো তার ঐ এক টুকরো কাঠের আবেগের সাথে। ক্রিকেটে প্রত্যেকটা জিনিসই অনেক আবেগের, যে খেলোয়ার এখনো তার প্রিয় ব্যাট দিয়ে কিছু করতে পারে নি, সেও তার ঐ ব্যাটটা সন্তানের মতে আগলে রাখে। আই নো ইট ভেরি ওয়েল। 💙

সেখানে বিশ্বকাপের মত স্বপ্নের মঞ্চে স্বপ্নের মত বিশ্বকাপ কাটিয়ে সেই স্মারক কেউই দিতে চাইবে না৷ সেখান তিনি পুরো আবেগটাই দিয়েছেন। আপনি হয়ত ভাবতে পারেন এটা খুবই সাধারণ ত্যাগ ছিলো। বাট দিস ইজ নট অ্যা সিম্পল রিনাউনসিয়েশন। দিস ইজ অ্যা ভেরি বিগ স্যাক্রিফাইজ। 💙

থ্যাংক ইউ সাকিব আল হাসান, আমাদের হাসি ফিরে পেতে আপনার আবেগ বিসর্জন দেয়ার জন্য, বেঁচে থাকলে ও হাসতে শিখলে আপনাকে নিয়ে আমরা ১৮ কোটি হাসবো কথা দিচ্ছি 💙

 219 total views,  2 views today

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *