পেস বোলার আবু জায়েদ চৌধুরী রাহিঃনির্ভরশীল পেসার
আবু জায়েদ চৌধুরী রাহি

পেস বোলার আবু জায়েদ চৌধুরী রাহিঃনির্ভরশীল পেসার

আবু জায়েদ চৌধুরী বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের একজন নির্ভরশীল পেসার। নিখুঁত লাইন লেংথে ব্যাটসম্যানকে বিভ্রান্ত করতে তার জুড়ি নেই। উইকেটের দু দিকেই তিনি সাজাতে পারেন সুইংয়ের পসরা।

আবু জায়েদ রাহী ১৯৯৩ সালের ২রা আগস্ট সিলেটে জন্মগ্রহণ করেন। তার আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে টি-টুয়েন্টি ক্রিকেটের মাধ্যমে। ২০১৮ সালের ১৮ই ফেব্রুয়ারি নিজের ঘরের মাঠ সিলেটে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে অভিষেক ম্যাচ খেলেন তিনি। বল হাতে চার ওভারে ৪৫ রান খরচায় তুলে নেন থিসারা পেরেরার উইকেট।
তিনি সর্বশেষ টি-টুয়েন্টি ম্যাচ খেলেন ২০১৮ সালের ৭ই জুন দেরাদুনে আফগানিস্তানের বিপক্ষে। ওই ম্যাচে চার ওভারে ২৭ রান খরচ করে তুলে নেন উসমান গনি ও নাজিবুল্লাহ জাদরাণের উইকেট। ওই ম্যাচের পর আর টি-টুয়েন্টিতে জাতীয় দলের জার্সি গায়ে জড়ানো হয় নি রাহির।

এই ডানহাতি পেসারের টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে ওই বছরেই, ২০১৮ সালের ৪ঠা জুলাই ওয়েস্টইন্ডিজের বিপক্ষে অভিষেক ঘটে তার। ওই ম্যাচে তিনি ২৬.৩ ওভারে ৮৪ রান খরচায় ডেভন স্মিথ, সাই হোপ এবং শ্যানন গ্যাব্রিয়েলের উইকেট তুলে নিয়ে নিজের আগমনী বার্তার জানান দেন।
তিনি সর্বশেষ টেস্ট ম্যাচ খেলেন জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ২০২০ সালের ২২শে ফেব্রুয়ারি মিরপুরে। প্রথম ইনিংসে তিনি ৭১ রানের বিনিময়ে ৪উইকেট শিকার করেন, এবং দ্বিতীয় ইনিংসে উইকেটশূন্য থাকেন।

এই পেসারের ওয়ানডে ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে ২০১৯ বিশ্বকাপের আগে ত্রিদেশীয় সিরিজে ডাবলিনে ওয়েস্টইন্ডিজের বিপক্ষে ১৩ই মে। অভিষেকে ৫৬ রানের বিনিময়ে উইকেটশূন্য থাকেন।
তিনি সর্বশেষ ওয়ানডে ম্যাচ খেলেন ঠিক তার পরের ম্যাচেই, ১৫ই ডাবলিনে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে তিনি ৫৮ রানের বিনিময়ে তুলে নেন ৫টি উইকেট। তবুও এক অজানা কারণে আর কোনো ওডিআই খেলা হয় নি তার।

আবু জায়েদ রাহী টেস্ট ক্রিকেটেঃ
ম্যাচ খেলেছেন- ৯ টি
বোলিং করেছেন- ১২ ইনিংস
বল করেছেন- ১৩৯৪ টি
রান দিয়েছেন- ৭৭৯ টি
উইকেট নিয়েছেন- ২৪ টি
ইকোনমি- ৩.৩৫
গড়- ৩২.৪৫
স্ট্রাইক রেট- ৫৮.০
পাঁচ উইকেট- নেই
ম্যাচ সেরা- ৪/৭১ ( প্রতিপক্ষ জিম্বাবুয়ে)

তিনি ওয়ানডে ক্রিকেটেঃ
ম্যাচ খেলেছেন- ২ টি
বোলিং করেছেন- ২ ইনিংস
বল করেছেন- ১০৮ টি
রান দিয়েছেন- ১১৪ টি
উইকেট নিয়েছেন- ৫ টি
ইকোনমি- ৬.৩৩
গড়- ২২.৮০
স্ট্রাইক রেট- ২১.৬
পাঁচ উইকেট- ১টি
ইনিংস সেরা- ৫/৫৮ (প্রতিপক্ষ আয়ারল্যান্ড)

তিনি আন্তর্জাতিক টি-টুয়েন্টি ক্রিকেটে,
ম্যাচ খেলেছেন- ৩ টি
বোলিং করেছেন- ৩ ইনিংস
বল করেছেন- ৬৬ টি
রান দিয়েছেন- ১১৪ টি
উইকেট নিয়েছেন- ৪ টি
ইকোনমি- ৯.৬৩
গড়- ২৬.৬০
স্ট্রাইক রেট- ১৬.৫
পাঁচ উইকেট- ০টি
ইনিংস সেরা- ১
২/২৭ (প্রতিপক্ষ আফগানিস্তান)।

একজন কমপ্লিট পেসারের সকল গুণই আছে রাহীর মধ্যে। নিজেকে সঠিকভাবে গড়ে তুলতে পারলে একজন পরিপূর্ণ পেস বোলার পাওয়ার আক্ষেপ ঘুচে যাবে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের।

 41 total views,  2 views today

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *